আলিম আল রাজি 'র হ-য-ব-র-ল মার্কা ব্লগ

স্বাস্থ্যসংক্রান্ত কোনো বই পড়ার সময় সাবধান। ছাপার ভুলের কারণে আপনার মৃত্যু হতে পারে। মার্ক টোয়েন, সাহিত্যিক।। আমি সব সময়ই বিখ্যাত ছিলাম, কিন্তু এত দিন সবাই জানত না। লেডি গাগা, আমেরিকান পপশিল্পী।। যদি আপনার পিতা-মাতার কোনো সন্তান না থাকে, তাহলে আপনারও নিঃসন্তান হওয়ার সম্ভাবনা আছে। ডিক ক্যাভেট, সাবেক আমেরিকান টিভি উপস্থাপক।। ঈশ্বর রোগ সারান কিন্তু সম্মানী নেন ডাক্তার। বেঞ্জামিন ফ্রাঙ্কলিন, আমেরিকান রাজনীতিবিদ, লেখক ও বিজ্ঞানী।। প্রলোভনের হাত থেকে মুক্তি পাওয়ার একমাত্র উপায় হলো তার বশবর্তী হওয়া। অস্কার ওয়াইল্ড, অভিনেতা ও সাহিত্যিক।। ভুল করার পরও কেউ হাসার অর্থ হলো, সে ইতিমধ্যে দোষ চাপানোর মতো অন্য কাউকে পেয়ে গেছে। রবার্ট ব্লক, সাহিত্যিক।। আমি অনেক বছর যাবৎ আমার স্ত্রীর সঙ্গে কথা বলিনি। আমি তার বক্তব্যে বাধা দিতে চাই না। রডনি ডেঞ্জারফিল্ড, আমেরিকান কৌতুকাভিনেতা।। একজন পুরুষ বিয়ের আগ পর্যন্ত অসম্পূর্ণ থাকে এবং বিয়ের পর সে শেষ হয়ে যায়। সা সা গাবুর, হাঙ্গেরিয়ান-আমেরিকান অভিনেত্রী।। সবার হৃদয়ে নিজের নামটি লিখুন, মার্বেল পাথরের দেয়ালে নয়। চার্লস স্পার্জান, ব্রিটিশ লেখক।। শুধু দালমা আর জিয়াননিনাই আমার বৈধ সন্তান, বাকিরা সবাই আমার অর্থ ও ভুলের ফসল। ডিয়েগো ম্যারাডোনা, সর্বকালের অন্যতম সেরা ফুটবলার।। কোনো পুরুষ যদি স্ত্রীর জন্য গাড়ির দরজা খুলে দেয়, তাহলে হয় গাড়িটা নতুন অথবা তার নতুন বিয়ে হয়েছে। প্রিন্স ফিলিপ, ব্রিটেনের রাজপুত্র।। আমি শিশুদের ভালোবাসি। কারণ আপনারা জানেন কি না জানি না, আমি নিজেও শিশু ছিলাম একসময়। টম ক্রুজ, হলিউড অভিনেতা।। জীবনের সব কাক্সিত বস্তুই হয় অবৈধ, কিংবা নিষিদ্ধ, কিংবা চর্বিযুক্ত, কিংবা ব্যয়বহুল, নয়তো বা অন্য কারও স্ত্রী। গ্রুশো মাক্স, সাহিত্যিক।। যতক্ষণ আপনি কোনো ছেলেকে অপছন্দ করবেন, সে আপনার জন্য তার সর্বস্ব ত্যাগ করতে প্রস্তুত থাকবে। যখন আপনি তাকে ভালোবাসতে শুরু করবেন, ততণে সে তার আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে। বিয়ন্স নোয়েলস, মার্কিন গায়িকা ও অভিনেত্রী।। আমার একটা অ্যালার্ম ঘড়ি আছে। মজার বিষয় হলো, সেটা কোনো আওয়াজ করে না। এটা আলো দেয়। যতই সময় যেতে থাকে, সেটি ততই উজ্জ্বল থেকে উজ্জ্বলতর হতে থাকে। একপর্যায়ে আলোর চোটে আমার ঘুম ভেঙে যায়। আমার সেই অ্যালার্ম ঘড়িটার নাম জানালা। জে লেনো, মার্কিন কৌতুক অভিনেতা।। আমাকে একটি গিটার দাও, আমি সেটা বাজাব। আমাকে একটি মঞ্চ দাও, আমি গাইব। আমাকে একটি অডিটরিয়াম দাও, আমি তা পরিপূর্ণ করে দেব। এরিক ক্যাপটন, সংগীতজ্ঞ।। আমার স্বামীর সঙ্গে দেখা হওয়ার আগে আমি কখনো প্রেমে পড়িনি, কয়েকবার পা রেখেছিমাত্র। রিটা রুডনার, মার্কিন কৌতুক অভিনেত্রী ও লেখিকা।। অবিবাহিত পুরুষদের ওপর উচ্চহারে কর বসানো উচিত। তারা কেন অন্যদের চেয়ে সুখে থাকবে? অস্কার ওয়াইল্ড, আইরিশ লেখক ও কবি।। বিয়ে হলো কল্পনার কাছে বুদ্ধির পরাজয়। দ্বিতীয় বিয়ে হলো আশার কাছে অভিজ্ঞতার পরাজয়। স্যামুয়েল জনসন, ব্রিটিশ লেখক।। বিয়ে হলো প্রকৃতির ডাকে সাড়া দেওয়ার মতোই প্রাকৃতিক, অযৌক্তিক এবং ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। লিসা হফম্যান, অভিনেতা ডাসটিন হফম্যানের স্ত্রী।। বুকমার্ক কেনার জন্য ডলার খরচ করার দরকার কী? ডলারটাকেই বুকমার্ক হিসেবে ব্যবহার করুন। স্টিভেন স্পিলবার্গ, চলচ্চিত্র পরিচালক।। আমার মনে হয়, যেসব পুরুষের কান ফুটো করা, তারা বিয়ের জন্য ভালোভাবে প্রস্তুত। কারণ, তারা ব্যথা সহ্য করেছে এবং অলংকারও কিনেছে। রিটা রুডনার, আমেরিকান কৌতুকাভিনেত্রী, লেখিকা ও অভিনেত্রী।। ডায়েটের প্রথম সূত্র হলো : খাবারটা যদি তোমার খেতে খুব ভালো লাগে, তাহলে অবশ্যই জিনিসটা তোমার জন্য তিকর হবে। আইজ্যাক আজিমভ, বিজ্ঞান কল্পকাহিনিকার।। আমার জন্মের পর আমি এত অবাক হয়ে গিয়েছিলাম যে পাক্কা দেড় বছর কথাই বলতে পারিনি। গ্রেসি অ্যালেন, মার্কিন কৌতুকাভিনেত্রী।। আমি কোনো দিন বিখ্যাত হতে পারব না। আমি কিচ্ছু করি না। কিছুই না। আগে দাঁত দিয়ে নখ কাটতাম। এখন তা-ও করি না। ডরোথি পার্কার, আমেরিকান রম্যলেখিকা।। আমি কখনোই আমার স্কুলকে আমার শিক্ষার ক্ষেত্রে ব্যাঘাত ঘটাতে দিইনি। মার্ক টোয়েন, সাহিত্যিক।। সত্যবাদিতাই সর্বোত্তম পন্থা, যদি না আপনি একজন অসাধারণ মিথ্যেবাদী হতে পারেন। জেরোম কে জেরোম, ব্রিটিশ লেখক।। আলস্য পুরোপুরিভাবে তখনই উপভোগ করা সম্ভব, যখন হাতে প্রচুর কাজ থাকে। জেরোম কে জেরোম, ব্রিটিশ লেখক।। যখনই টিভিতে পৃথিবীর সব অনাহারি ও দরিদ্র শিশুকে দেখি, কান্না ধরে রাখতে পারি না। মনে হয়, ইশ, আমার ফিগারটাও যদি ওই রকম হতো। মারায়া ক্যারি, সংগীতশিল্পী।। সুষম খাদ্যতালিকার একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হলো খাদ্য। ফ্র্যান লেবোউইটজ, মার্কিন লেখক।। ধূমপান মৃত্যু ডেকে আনে। যদি আপনার মৃত্যু ঘটে, তাহলে জীবনের খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ আপনি হারাবেন। ব্রুক শিল্ডস, অভিনেত্রী।। বক্সিংয়ে এ পর্যন্ত ইনজুরি, মৃত্যু-দুটোই হয়েছে। কোনোটিই তেমন মারাত্মক ছিল না। অ্যালান মিন্টার, বক্সার।। অন্যের শেষকৃত্যানুষ্ঠানে সব সময় যাওয়া উচিত। তা না হলে তারাও আপনার শেষকৃত্যানুষ্ঠানে আসবে না। ইয়োগি বেরা, বেসবল খেলোয়াড়।। এমন কাজ তোমার করার দরকার নেই, যেটা আগামীকাল অন্যের ঘাড়ে এমনিতেই চাপবে। ডেভিড ব্রেন্ট, অভিনেতা।। আমাকে কোনো প্রশ্ন কোরো না, তাহলে আমাকেও কোনো মিথ্যা বলতে হয় না। ওলিভার গোল্ডস্মিথ, আইরিশ লেখক ও কবি।। মডেলরা হলো বেসবল খেলোয়াড়দের মতো। আমরা খুব তাড়াতাড়ি বিপুল অর্থের মালিক হই, কিন্তু বয়স ৩০ হতে না হতেই আবিষ্কার করি যে আমাদের উচ্চশিক্ষা নেই, কোনো কিছু করারই যোগ্যতা নেই। কিন্তু আমরা খুবই বিলাসী জীবনযাপনে অভ্যস্ত। এমন সময় সবচেয়ে বুদ্ধির কাজ হলো কোনো মুভিস্টারকে বিয়ে করে ফেলা। সিন্ডি ক্রাফোর্ড, মডেল।। ফিলাডেলফিয়ার পথঘাট খুবই নিরাপদ। শুধু মানুষই সেগুলোকে অনিরাপদ বানিয়ে রেখেছে। ফ্রাংক রিজো, আমেরিকার ফিলাডেলফিয়ার সাবেক মেয়র।। সব সময় মনে রাখবেন, আপনি অনন্য। ঠিক আর সবার মতো। মার্গারেট মেড, নৃতত্ত্ববিদ।। বিশেষজ্ঞরা বলেন, রাগের মাথায় কখনো বাচ্চাদের মারবেন না। আমার প্রশ্ন হলো, তাহলে কখন মারব? মনে যখন আনন্দ থাকে তখন? রোজেইন বার, লেখক।। টেলিভিশন আমার কাছে খুবই শিক্ষামূলক। বাড়ির সবাই যখন টেলিভিশন দেখে, আমি তখন অন্য ঘরে গিয়ে বই পড়তে শুরু করি। গ্রুশো মার্ক্স, কৌতুকাভিনেতা।। হাল ছেড়ো না। একটা ডাকটিকিটকে দেখো। নিজ গন্তব্যে না পৌঁছানো পর্যন্ত তা একটি খামের সঙ্গেই লেগে থাকে। জশ বিলিংস, লেখক।। কেউ মহৎ হয়েই জন্মায়, কেউ অনেক চেষ্টা করে মহৎ হয়। বাকিরা পাবলিক রিলেশন অফিসারদের ভাড়া করে। ড্যানিয়েল জে বুরর্স্টিন, ইতিহাসবিদ।। বাস্তব ও কল্পকাহিনির মধ্যে পার্থক্য হলো, কল্পকাহিনিকে সব সময় যুক্তিপূর্ণ হতে হয়। টম ক্যান্সি, লেখক।। অস্ট্রেলিয়ার মানুষের অন্যতম প্রিয় শখ হচ্ছে কবিতা না পড়া। ফিলিস ম্যাকগিনলে, লেখক।। চলচ্চিত্রের দৈর্ঘ্য মানুষের ব্লাডারের সহ্যমতার সমানুপাতিক হওয়া উচিত। আলফ্রেড হিচকক, চলচ্চিত্র প্রযোজক ও পরিচালক।।



.

বৃহস্পতিবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১১

ভিকারুন্নেসাতে সেদিন যা ঘটেছিলো

মন্তব্যঃ টি মন্তব্যঃ . .

সামহোয়্যারিনব্লগের সর্বাধিক পঠিত পোস্ট মনে হয় এটা।
এই পোস্টের মাধ্যমে চেষ্টা করেছিলাম ব্লগের শক্তিকে ব্যবহার করে ঐদিন ভিকারুন্নেসার ভেতরের অবস্থা সম্পর্কে সবাইকে জানাতে।
এই কাজে আমাকে সাহায্য করেছিলেন কয়েক ভিকি ও এক্স ভিকি। আসলে মূল কাজটাই করেছিলেন তারা।
ঐদিন দেয়া সব আপডেটের ব্যাক-আপ রাখা ছিলোনা আমার পার্সোনাল ব্লগে। আজ রাখলাম।

পোস্টটি দিয়েছিলাম ১৪ জুলাই ২০১১। স্টিকি হয়েছিলো তিনদিন।


************************************************************************
গত কয়েকদিন ভিকারুননিসার ভেতরে কি ঘটেছিলো তার কোন খবর কিংবা ছবি পত্রিকায় আসেনি। তাই ভিকিরাই একটি ফেসবুক পেজ খুলেছে। সেখানে আপলোড করা হচ্ছে এক্সক্লুসিভ সব ছবি। জানানো হচ্ছে সব সত্যি খবর। পেজটিতে লাইক দিতে পারেন।

আপডেট - ২২
পরিমল জয়ধরের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে আগামীকাল বেলা ২ টায় কলেজের সামনে মানববন্ধন করবে ছাত্রীরা।

ধিক এ.টি.এন নিউজ, ধিক মুন্নি সাহা (১৫ জুলাই রাত ১১ টা)
কিছুক্ষন আগে এটিএন নিউজের টকশো-টা সঞ্চালন করেছিলেন মুন্নি সাহা। হ্যা... বিশিষ্ট সাংবাদিক মুন্নি সাহা। বলা হলো- "রাজনীতির কারনে অস্থির হয়ে উঠেছে ভিকারুননিসা(!!!)" ওখানে যে বানোয়াট তথ্যগুলো দেয়া হয়েছে তার কয়েকটা হলো- অভিভাবকরা কোন ভুমিকা নেননি, অভিভাবকরা বাচ্চাদের নিয়ন্ত্রন করতে পারেন নি। অথচ এই এটিএন নিউজের সাংবাদিকরা গতকাল ভিকারুন্নেসার ছাত্রীদের বলেছিলেন "আমরা তোমাদের সাথে আছি। আমাদের মুন্নি সাহাও তোমাদের প্রতি অনেক সহানুভুতিশীল।"


আপডেট - ২১ (সকাল ১০ টা ১০। ১৫ জুলাই)
নতুন জটিলতাঃ
এটা একটু ভিতরের খবর- মামলার দুই নম্বর আসামী হলেন লুৎফর রাহমান(ভিকারুন্নেসার ইতিহাসের একমাত্র পুরুষ প্রধান শিক্ষক। নির্যাতিত হওয়ার পর তার কাছে প্রথম মেয়েটি অভিযোগ জানিয়েছিলো। তিনি সব চেপে যেতে বলেছিলেন)। এই লুৎফর রাহমান ছিলেন বসুন্ধরা শাখার প্রধান শিক্ষক। তাকে এখন নিয়ে নেয়া হয়েছে আজিমপুর শাখায়। আর আজিমপুর শাখার প্রধান শিক্ষিকাকে নিয়ে আসা হয়েছে বসুন্ধরা শাখায়। যার ফলে পরিস্থিতি আবারও ঘোলাটে হচ্ছে। আরেকটা ছোট্ট খবরঃ চার সদস্যের এডহক কমিটিতে বহাল তবিয়তে আছেন হুসনে আরা বেগম। আর এখন সব সিদ্ধান্ত নিচ্ছে এই এডহক কমিটি।

আপডেট - ২০ (বিকেল ৫ টা ৪০)
হুসনেয়ারা গেছেন তিন মাসের ছুটিতে। বেশিরভাগ মিডিয়ায় আজকের সংবাদে মনজু আরা বেগমকে চলতি দায়িত্বে অধ্যক্ষ এবং হোসনে আরাকে মূল অধ্যক্ষ হিসেবে লেখা হয়েছে। নতুন প্রিন্সিপাল মনজু আরা বেগম ইতিহাসের শিক্ষক। ভিকারুননিসার টিচারদের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে মেয়েরা আপাতত কেউ আর কোন আন্দোলনে যাবে না।

আপডেট - ১৯ (বিকেল ৫ টা ২৫)
মিটিং এখনো চলছে। বেশিরভাগ ছাত্রীরা এখন বাসায় চলে আসছে। আশ্বাস দেয়া হয়েছে যে মিটিং-এ কি সিদ্ধান্ত হয়েছে সেটা সবাইকে জানানো হবে। জানানো হলে আপনারা জানতে পারবেন আশা রাখি। আমিও এখানে জানিয়ে যাবো।


আপডেট - ১৮ (বিকেল ৪ টা)
হুমকি দিয়ে গেলো এনটিভি আর দেশটিভিঃ ছাত্রীদের ক্রমাগত বেয়াড়া প্রশ্ন করে যাচ্ছেন সাংবাদিকরা। এক সাংবাদিক বললেন, "আপনারা ক্লাস বর্জন করলেন কেনো?"। জবাবে এক ছাত্রী বললেন "আপনার বোন র‍্যাপড হলে আপনি কি করতেন?" সাংবাদিকঃ দিস ইজ নান অব মাই বিজনেস। আমি হলে ক্লাস করতাম। ছাত্রীঃ আপনারা আমাদের বারবার একই প্রশ্ন করছেন। আমাদের অবস্থা বুঝেও না বুঝার ভান করছেন। সকাল থেকেই তো নিউজ নিচ্ছেন। কই? পাবলিশ তো করছেন দায়সারাভাবে। সাংবাদিকঃ তো! আমি কি করতে পারি? ছাত্রীঃ তো! পাবলিশ হচ্ছে না কেনো? টাকা খেয়েছেন? নাকি উপরের চাপ? এই কথা শোনার পর রাগ করে বেরিয়ে গেলেন এনটিভি আর দেশটিভির সাংবাদিকরা। যাবার আগে জানিয়ে গেলেন "এখন দেখবা তোমাদের নিউজ কিভাবে যায়। তোমাদের সাহস কমানোর সময় এসেছে"


আপডেট - ১৭ (দুপুর ৩ টা)
বোর্ড থেকে এই মাত্র ম্যাডামরা ফিরেছেন। তারা এখন মিটিং-এ আছেন। বাইরে ছাত্রীরা অপেক্ষা করছে। মিটিং-এ কি সিদ্ধান্ত নেয়া হলো খবর পাওয়া মাত্র জানিয়ে দেবো।


আপডেট - ১৬
ছোট্ট একটা ঘটনা- ছোট ছোট বাচ্চারা পুরো দিন না খেয়ে কলেজে। সিনিয়ররা ৫/১০ টাকা চাদা তুলে কিছু টাকা জমিয়ে বাচ্চাদের জন্য খাবার আনতে গিয়েছিলেন। মাঝখানে তথ্যমন্ত্রনালয়ের লোকজন তাদের থামিয়ে চোখ রাঙ্গিয়ে বললেন, “তোমাদের পেছনে কারা আছে? কে তোমাদের এই টাকা দিয়েছে। সত্যি করে বলো। পেছনের শক্তিটা কে বা কারা?”

আপডেট - ১৫ (দুপুর ২ টা ২০)
মিডিয়ার নতুন ভেলকিবাজি। খবর বেরিয়েছে ছাত্রীরা দুই ভাগে বিভক্ত, কেউ পরিমলের পক্ষে, কেউ বিপক্ষে। কিন্তু এটা সম্পুর্ন মিথ্যা একটি প্রপাগন্ডা। ক্যাম্পাস থেকে খবর নিশ্চিত করা হয়েছে। সবাই এক বাক্যে পরিমলের বিচার চায়। হুসনে আরার অপসারণ চায়। কেউ পরিমলের পক্ষে না।

আপডেট - ১৪ (দুপুর ২ টা)
এই মাত্র কথা হচ্ছিলো ভিকারুন্নেসার ভেতরে থাকা এক আপুর সাথে। ফোনে কথা বোঝা যাচ্ছে না। চারিদিকে শুধু মিছিলের শব্দ। মুহুর্মুহু স্লোগানে প্রকম্পিত চারদিক। আপু খুব সংক্ষেপে জানালেন ভিকিরা দুই দফা দাবী জানিয়েছে। তারা তাদের দাবীতে অনড় আছে। দুই দফা হলো পরিমলের বিচার ও হুসনে আরা-র অপসারণ।

আপডেট - ১৩
পুরো ঘটনাকে পলিটিকাল ব্যাপারে ডাইভার্ট করার প্রায় সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করে ফেলা হয়েছে। শিক্ষামন্ত্রী ইতোমধ্যে জানিয়ে ফেলেছেন এ ঘটনায় তৃতীয় শক্তির ইন্দন আছে। প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন তিনি ঘটনাস্থলে আসবেন না। টিভিতে দেখে সিদ্ধান্ত নেবেন।

আপডেট - ১২
শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলছেন -"আইন অনুযায়ী হোসনে আরাই ওই প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ"-সূত্র:চ্যানেল আই


আপডেট - ১১ (দুপুর ১২ টা ৫০)
ভিকারুন্নেসার সব'কটি গেটে ছাত্রীরা অবস্থান নিয়েছে। তারা স্লোগান দিচ্ছে, গান গাচ্ছে। হুসনে আরা-কে ঢুকতে হলে এখন ছাত্রীদেরকে মাড়িয়ে ঢুকতে হবে।



আপডেট - ১০ (দুপুর ১২ টা ৫০)
স্মারকলীপি দিয়ে এসেছেন ছাত্রীরা। প্রধানমন্ত্রীর সেক্রেটারি(অথবা সেক্রেটারী টাইপের কেউ) স্মারকলীপি দেখে বলেছেন "এসব কি! আমি তো কিছুই জানি না!!"


আপডেট - ৯
আম্বিয়া আপাকে ডেকে পাঠিয়েছে ঢাকা বোর্ড।


আপডেট - ৮ (দুপুর ১২ টা ৪০)
আইডি কার্ডে হুসনে আরা-র সাক্ষর থাকায় আই ডি কার্ড খুলে ফেলে দিয়েছে ভিকি-রা।


আপডেট - ৭
মেয়েরা ভিতর থেকে পুরা স্কুল ঘিরে রেখেছে। হোসনে আরা'র বাস ঘেরাও করে জুতা বোতল মারছে। সূত্রঃ Click This Link


আপডেট - ৬
৮/১০ জন ছাত্রী স্মারকলীপি নিয়ে গেছেন প্রধানমন্ত্রীর কাছে


আপডেট - ৫
মিডিয়া পালন করছে হাস্যকর ভুমিকা। তারা এসে শিক্ষকদের জিজ্ঞেস করেছে, "এই ছাত্রীরা আন্দোলনে ইচ্ছুক না। আপনারা এদেরকে বসিয়ে রেখেছেন কেনো?" শিক্ষকরা বলেছেন "আপনারা ছাত্রীদেরই জিজ্ঞেস করুন তারা আন্দোলনে ইচ্ছুক কি না" এটা শুনে সাংবাদিকরা ছাত্রীদের জিজ্ঞেস করছেন, "আপনারা নিজেদের ইচ্ছায় এখানে এসেছেন? নাকি নিয়ে আসা হয়েছে?"


আপডেট - ৪
ঢাকা শিক্ষাবোর্ড থেকে লোকজন এসেছিলেন। তারা এই মাত্র কথা বলেছেন ছাত্রীদের সাথে। তারা সাত কর্মদিবস সময় নিয়েছেন। আশ্বাস দিয়েছেন এই সাতদিনে তারা ব্যাপারটা ভালোভাবে তদন্ত করবেন। আরো বলেছেন তারা ছাত্রীদের প্রতি যথেষ্ঠ সহানুভূতিশীল।



আপডেট - ৩
প্রথম আলো আর এন টিভি ছাড়া আর কোন মিডিয়ার এখনো টনক নড়েনি। ভিকারুন্নেসা ক্যাম্পাসে এখন পর্যন্ত এই দুইটা মিডিয়ার সাংবাদিক পৌছেছেন।



আপডেট- ২
সিদ্ধান্ত হয়েছে ১০০ জন ছাত্রী স্মারকলীপি নিয়ে বের হবে। কিন্তু এখানে বাধ সাধছে পুলিশ। তারা কোন ছাত্রীকে বের হতে দিচ্ছে না। স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছে বের হলে গ্রেপতার করা হবে।



আপডেট- ১
ছাত্রীরা কলেজের ভিতরে অবস্থান করছিলো। কিছুক্ষন আগে পুলিশ এসে তাদেরকে গ্রেপতারের ভয় দেখিয়ে গেছে। উচু গলায় কথা বলেছে অবস্থানরত ছাত্রীদের সাথে। ছাত্রীরা নিজেদের নিরাপত্তার জন্য অডিটোরিয়ামের ভিতর চলে গেছে এখন।


- ভিকারুন্নেসার ভেতর থেকে জানিয়েছেন জনৈক ব্লগার (এক্স ভিকি)




শুরু>
*************************************************
কলেজের সামনে দাঁড়িয়ে আছে বর্তমান ও প্রাক্তন ছাত্রীরা। অসংখ্য দাঙ্গা পুলিশও জড়ো করে এনে রাখা হয়েছে। পুলিশরা মোটামোটি মারমুখি ভঙ্গিতেই আছে। ছাত্রীদের উপর যেকোন মুহূর্তে চড়াও হতে পারে তারা। বর্তমান ছাত্রীদের ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না ভেতরে।


আপডেট ফ্রম জনৈক এক্স ভিকি।


কিঞ্চিত অফটপিকঃ
Mor Midding(এই নামের মানে কি?) নামের কেউ একজন আমাকে একটা মেসেজ পাঠিয়েছেন ফেসবুকে। মে​সেজ পাঠিয়েই উনি তার একাউন্ট ডিএকটিভ করে ফেলেছেন। যার ফলে আমি রিপ্লাইও দিতে পারছি না। মেসেজটি হলোঃ
"পানিতে নেমে কুমিরের সাথে লড়াই করতে আসবেন না আলীম আল রাজি। আপনি আপনার অনেক বড় ক্ষতি করে ফেলেছেন। আধা ঘন্টার মধ্যে সামুর পোস্ট থেকে সাংবাদিকদে​র against-এ লেখা প্রতিটা লাইন মুছবেন। নাহলে আপনার জন্য অনেক খারাপ কিছু অপেক্ষা করছে। মাইন্ড ইট।"


সংযুক্তিঃ
** Some FACTS of VNC PROTEST.. TODAY'S DIARY (একজন এক্স ভিকি-র ফেসবুক নোট)
** ধর্ষক পরিমলের জন্য ডিবি অফিসে ছাত্রলীগের ফলচক্র ও অথিতেয়তা
** ভিকারুননেসা ইস্যু নিয়ে অনেকগুলো পোস্টের সংকলন


 
টেমপ্লেট ডিজাইন আলিম আল রাজি | ব্যাক্তিগত ব্লগসাইট খেয়ালিকা'র জন্য খেয়ালিকা | যোগাযোগ